1. news.ajkerkontho@gmail.com : Ajker Kontho : Ajker Kontho
  2. multicare.net@gmail.com : আজকের কন্ঠ :
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:০৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
শ্রমিকদের যাতায়াতের পথ উন্মুক্ত করা ও এসিড কারখানা বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ব্রয়লার ও ডিমের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি রোধে জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের বাজার অভিযান নিয়ামতপুরে স্বেচ্ছাসেবক দলের আলোচনা, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল নিয়ামতপুরে দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদ পথচারীকে রক্ষা করতে নিজেই না ফেরার দেশে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কারাগারে সহিংস তান্ডবের মামলায় যুবলীগের সভাপ‌তি গ্রেফতার উপজেলা এবং ইউপি পরিষদের নিয়মিত ওয়েব পোর্টাল হালনাগাদ করার হুশিয়ারি দেন — জেলা প্রশাসক ডিমসহ নিত্যপণ্যের দোকানে জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযান প্লাস্টিক কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

উপজেলা পরিষদ যেন ছাগলের খামার!

Rabiul Hasan Rajib
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৯ জুন, ২০২২
সত্য প্রকাশে নির্ভীক

বিশেষ প্রতিনিধি: ফরিদপুরের সালথা উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনে ছাগল পালন করতে দেখা গেছে। মাঝে মধ্যেই ছাগল পালনের এমন দৃশ্য চোখে পড়ে। ভবনটি যেন ছাগলের খামারে পরিনত হয়েছে। ছাগলগুলো ভবনের বারান্দাসহ যেখানে-সেখানে প্রস্রাব-পায়খানা করছে। যেকারণে দুর্গন্ধে পরিবেশ চরমভাবে দুষিত হচ্ছে।

পাশাপাশি ছাগলের উৎপাতে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অফিস করতে প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। তারা রুমাল দিয়ে নাক-মুখ ঢেকে অফিসে যাওয়া-আসা করছেন। তারপরেও যেন দেখার কেউ নেই।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ ভবনের দোতলায় সরাসরি ইউএনওর কার্যালয়ের সামনে দেখা যায়- দুটি বড় ছাগল ঘুরাফেরা করছে। বারান্দার মেঝতে কতক্ষন পরপর প্রস্রাব-পায়খানা করছে। সেখানে ইউএনওর নিরাপত্তাকর্মীরা উপস্থিত থেকে বিষয়টি দেখছেন। কিন্তু কিছু বলছেন না, ছাগল দুটিকে তাড়িয়েও দিচ্ছেন না।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়- ছাগল দুটি ইউএনও সাহেবের। তাই ভয়ে কেউ কিছু বলেন না। সকলে ছাগলের উৎপাত সহ্য করেই অফিস করে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক সরকারি কর্মচারী বলেন- প্রতিদিন ছাগল দুটি অফিসের সামনে এসে উৎপাত শুরু করে। সেখানে-যেখানে প্রস্রাব-পায়খানা করে। মাঝে মাঝে অফিসের ভিতরও ঢুকে পড়ে। ছাগল দুটি ইউএনও স্যারের হওয়ায় আমরা মুখ বন্ধ রাখি।

উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তারা ছাগলের উৎপাতে চরম বিরক্ত হলেও বিষয়টি নিয়ে তারা কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

উপজেলা পরিষদে সেবা নিতে আসা কয়েকজন বলেন- উপজেলা পরিষদ থাকবে পরিস্কার-পরিছন্ন। যেখানে মানুষ সেবা নিতে এসে পরিবেশ থেকে মুগ্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু এ কি অবস্থা দেখছি।

এ বিষয় বক্তব্য নেওয়ার জন্য সাংবাদিকরা সালথা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা: তাছলিমা আক্তারকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

error: Content is protected !!