1. news.ajkerkontho@gmail.com : Ajker Kontho : Ajker Kontho
  2. multicare.net@gmail.com : আজকের কন্ঠ :
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০১:৩৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
স্কুল ছাত্রীর লাশ তালাবদ্ধ বাথরুম ভেঙে উদ্ধার আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘরে চাঁদাবাজি, আটক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের স্বামী সালথায় যথাযথ মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ফরিদপুর আঞ্চলিক কেন্দ্রের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন জাতির পিতাকে হত্যার পর তার নাম মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছিল- লাবু চৌধুরী বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন খাদ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র মজুমদারের শোক বাণী মেয়ের প্রেম লীলায় মা না ফেরার দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় দম্পতির প্রাণ গেল জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সালথার দলীয় নেতাদের সাথে মতবিনিময় করলেন লাবু চৌধুরী

সালথার আলোচিত সেই খারদিয়া গ্রামে ফের সংঘর্ষ, আহত ১০, বাড়ি ভাঙচুর, আটক-৪

Rabiul Hasan Rajib
  • প্রকাশিত: রবিবার, ৫ জুন, ২০২২
সত্য প্রকাশে নির্ভীক

বিশেষ প্রতিনিধি: ফরিদপুরের সালথায় সংঘর্ষে শীর্ষে থাকা আলোচিত সেই বড় খারদিয়া গ্রামে আবারও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ভাঙচুর করা হয়েছে বেশ কয়েকটি বসতবাড়ি। এতে অন্তত ১০ ব্যক্তি আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে এক যুবকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

রোববার ভোরে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিবেশ শান্ত করে। এ ঘটনায় ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

গ্রামবাসী জানান- স্থানীয় আধিপত্য নিয়ে বড় খারদিয়া গ্রামের প্রভাবশালী বাসিন্দা যদুনন্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিক মোল্যা সাথে একই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক মো. আলমগীর হোসেন মিয়া বিরোধ চলছে। বিরোধের জেরে গত ৭ মাসে একাধিক সংঘর্ষে মারিজ শিকদার, সিরাজুল ইসলাম ও আসাদ শেখ নামে ৩ যুবক নিহত হয়। ভাঙচুর করা হয় অন্তত ৫ শতাধিক বাড়িঘর। এসব হত্যা মামলায় উভয় নেতাই আসামী হয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

এরই মধ্যে রোববার ভোর ৬টার দিকে হঠাৎ আলমগীরের সমর্থক নজরুল শিকদারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর শুরু করে রফিকের সমর্থকরা। পরে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। প্রায় ঘন্টাবাপী চলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়। তাদের মধ্যে কয়েকজনকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে আলমগীরের সমর্থক হোসেন শেখ (৩৫) নামে এক যুবকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। কাতরা দিয়ে তার পায়ে ও পাষরে অন্তত ১২টি কোপ দেয়া হয়।

সংঘর্ষের বিষয়টি নিশ্চিত করে সরকারী পুলিশ সুপার (নগরকান্দা-সালথা সার্কেল) মো. সমিনুর রহমান বলেন- খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ৯ রাউন্ড শর্টগানের ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থল থেকে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। এলাকার পরিবেশ শান্ত রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

error: Content is protected !!