1. news.ajkerkontho@gmail.com : Ajker Kontho : Ajker Kontho
  2. multicare.net@gmail.com : আজকের কন্ঠ :
মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৩১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
পিতার লাশ বাড়িতে রেখেই অশ্রু জলে বুক ভাসিয়ে পরীক্ষার হলে ছেলে জেলা পরিষদ নির্বাচনে আ.লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী ভোট চেয়ে কাঁদলেন ভাঙ্গা উপজেলা সিপিপির বর্ধিত সভা ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত বোয়ালমারীতে জনপ্রতিনিধিদের সাথে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীর মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ফরিদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ  বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের মাননীয় বিচারপতিকে ফরিদপুর জেলা আইনজীবী সমিতির পক্ষ থেকে সংবর্ধনা প্রদান  সমাজের সবক্ষেত্রেই সুবিচার নিশ্চিত করতে হবে – বিচারপতি মো: রেজাউল হাসান  পরিবেশ উন্নয়ন ফোরামের উদ্যোগে ফরিদপুরে বিশ্ব নদী দিবস পালন উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত ভাঙ্গা উপজেলার বাজারে ভোক্তা অধিদপ্তরের বাজার অভিযান

এক গ্রামের সংঘর্ষে অতি উৎসাহে যোগ দিলেন আরও গ্রাম: গুলিবিদ্ধসহ আহত ১২, বাড়িঘর ভাংচুর

Rabiul Hasan Rajib
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল, ২০২২
সত্য প্রকাশে নির্ভীক

নুরুল ইসলাম, সালথাঃ ফরিদপুরের সালথায় স্থানীয় আধিপত্যকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

গুলিবিদ্ধ হয়েছেন দুই জন। ভাঙচুর করা হয়েছে ১৭টি বসত বাড়িঘর। আহতদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ দুইজনসহ কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার রাতে উপজেলার আটঘর ইউনিয়নে খোয়াড় গ্রামে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে। এ সংঘর্ষে প্রতিবেশী আরও অন্তত ৫টি গ্রামের দেড় হাজার লোক অংশগ্রহণ করে বলে জানা গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে শর্টগানের গুলি ও সাউন্ড গ্রেনেট ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী কয়েক ব্যক্তি জানান, গত সোমবার সন্ধ্যায় ইফতার শেষে আটঘর ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম খান সোহাগের অনুসারী খোয়াড় গ্রামের জালাল শেখ ও রবিউল শেখের সাথে গত ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে অংশ নেওয়া মো. বকুল মাতুব্বরের অনুসারী আমিনুল মাতুব্বরের সমর্থক খবির শেখের কথা কাটাকাটি হয়। বিষয়টি উভয় গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে জানাজানি হলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। একর্পয়ায় উভয় গ্রুপের সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র হাতে জড়ো হয়ে একে অপরের উপর হামলা চালালে সংঘর্ষ শুরু হয়।

সংঘর্ষে প্রতিবেশী সেনাটি, গবিন্দপুর, সিংহপ্রতাপ, গোয়ালপাড়া ও বালিয়া গ্রামের দেশ সহস্রাধিক মানুষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অংশ নেয়। এসব গ্রামের লোকজন খোয়াড় গ্রামের সাথে জোট বেধে গ্রাম্য দল করেন কলে জানা যায়। এতে পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ রূপ নেয়।

সোমবার সন্ধ্যা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত দফায় দফায় চলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, সংঘর্ষ ও বাড়িঘর ভাঙচুর। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে শর্টগানের গুলি, কাঁদানে গ্যাস ও সাউন্ড গ্রেনেট ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ঘটনায় রাজিব মোল্লা, ইস্রাফিল শেখ, বজলু মাতুব্বর, ফিরোজ মাতুব্বর, আহম্মদ মাতুব্বর ও জালাল শেখসহ উভয় গ্রুপের অনন্ত ১০ জন আহত হয়। এর মধ্যে রাজিব মোল্লা, ইস্রাফিল শেখ গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছে বলে স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে।

আহতদের মধ্যে কয়েকজনকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ রাজিব মোল্লা (২০) ও ইস্রাফিল শেখ (২৫) কে ঢাকা একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রাজিব সিংহপ্রতাপ গ্রামের চুন্নু মোল্লার ছেলে ও ইস্রাফিল একই গ্রামের কাসেম শেখের ছেলে।

মো. বকুল মাতুব্বরের সমর্থক আমিনুল মাতুব্বর বলেন, সামান্য ঘটনা নিয়ে সামাদ মাতুব্বর তার দল নেতা ইউপি চেয়ারম্যান সোহাগকে বলে গোয়ালপাড়া, সেনাটী, গবিন্দপুর ও সিংহপ্রতাব থেকে শতশত লোক এনে আমার লোকজনের উপর হামলা চালায়। আমার দলের নিজাম শেখের ৩টি ও সত্তার মাতুব্বরের ২াট বসতঘর ভাঙচুর করে। পরে আমার লোকজন প্রতিরোধ গড়ে তুললে সংঘর্ষ শুরু হয়।

ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলামের সমর্থক সামাদ মাতুব্বর বলেন, গ্রাম্য দলপক্ষ নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে আমিনুল মাতুব্বর বালিয়া গ্রাম থেকে অনেক লোকজন এনে আমার লোকজনের উপর হামলা করে। এর ফলে মোহাম্মাদ ফকিরের ২টি, কুদ্দুস মাতুব্বরের ৩টি, মানিক মাতুব্বরের ৩টি, জালাল শেখে ২টি ও শুকুর মশালচীর ২টি বসতঘর ভাঙচুর করে তারা।

সহকারী পুলিশ সুপার (নগরকান্দা-সালথা সার্কেল) মো. সুমিনুর রহমান বলেন, গত এক বছরের মধ্যে এত বড় সংঘর্ষের ঘটনা সালথায় হয়নি। সংঘর্ষে কয়েক গ্রামের দেড় সহস্রাধিক মানুষ দেশীয় অস্ত্র হাতে অংশ নেয়। থানা ও জেলা পুলিশ সংঘর্ষের মাঝে অবস্থান নিয়ে প্রথমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন। পরে শর্টগানের ১৫টি গুলি ও দুটি সাউন্ড গ্রেনেট ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। এলাকার পরিবেশ এখন শান্ত। তবে ফের সংঘর্ষের আশঙ্কায় ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

দুই তরুণের গুলিবিদ্ধ হওয়ার প্রসঙ্গে বলেন, এই রকম কথা আমি শুনেছি। ওই দুই তরুনের খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে। যদি এ ঘটনা ঘটে তাতে প্রমান হয় ওই দুই তরুন সংঘর্ষে অংশ নিয়েছিল। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

error: Content is protected !!