1. news.ajkerkontho@gmail.com : Ajker Kontho : Ajker Kontho
  2. multicare.net@gmail.com : আজকের কন্ঠ :
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৩:৫৯ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
শ্রমিকদের যাতায়াতের পথ উন্মুক্ত করা ও এসিড কারখানা বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ ব্রয়লার ও ডিমের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি রোধে জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের বাজার অভিযান নিয়ামতপুরে স্বেচ্ছাসেবক দলের আলোচনা, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল নিয়ামতপুরে দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদ পথচারীকে রক্ষা করতে নিজেই না ফেরার দেশে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কারাগারে সহিংস তান্ডবের মামলায় যুবলীগের সভাপ‌তি গ্রেফতার উপজেলা এবং ইউপি পরিষদের নিয়মিত ওয়েব পোর্টাল হালনাগাদ করার হুশিয়ারি দেন — জেলা প্রশাসক ডিমসহ নিত্যপণ্যের দোকানে জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযান প্লাস্টিক কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

সালথায় ভ্যানচালক হত্যার গুজব রটিয়ে প্রতিপক্ষের ১৪ বাড়িঘর ভাঙচুর-লুটপাট

Rabiul Hasan Rajib
  • প্রকাশিত: রবিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২২
সত্য প্রকাশে নির্ভীক

সালথা সংবাদদাতা: ফরিদপুরের সালথায় আমিনুল মিয়া নামে তরুন এক ভ্যানচালক হত্যার গুজব রটিয়ে প্রতিপক্ষের ১৪টি বসত বাড়ি ও একটি ইটের ভাটায় হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর-লুটপাট করার অভিযােগ পাওয়া গেছ। এতে দুই জন আহত হলে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার যদুনদী ইউনিয়নের খারদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। তবে ঘটনাটি নিয়ে রবিবার বিকাল পর্যন্ত ওই এলাকার দুটি পক্ষের মধ্য ব্যাপক উত্তেজনা চলছিল। উভয় পক্ষের সমর্থকদের দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে মুখােমুখি অবস্থানে থাকতে দেখা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান- খারদিয়া বাজারের মােড়ে শনিবার সন্ধ্যায় ভ্যান রাখা নিয়ে যদুনদী ইউপি চেয়ারম্যান রফিক মােল্যার সমর্থক ভ্যানচালক আমিনুল মিয়ার (২২) সাথে ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আলমগীর মিয়ার সমর্থক ভ্যানচালক সাজ্জাদ শেখের (২৫) কথা কাটাকাটি হয়। বিষয়টি জানাজানি হলে আলমগীর মিয়ার সমর্থকেরা বাজারে জড়াে হয়ে ভ্যানচালক আমিনুলকে পিটিয়ে তার পা ভেঙ্গে দেয়।

অপরদিকে একই সময় রফিকের সমর্থকেরা অপর ভ্যানচালক সাজ্জাদকেও কুপিয়ে জখম করে। পাল্টাপাল্টি হামলায় আহত দুই জনকেই স্থানীয়রা উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভর্তি করেন। এর মধ্য রাত ৮টার দিকে আমিনুল হাসপাতালে মারা গেছে বলে এলাকায় ভুয়া খবর ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

একপর্যায় আ.লীগ নেতা আলমগীরের সমর্থকেরা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়। পরে চেয়ারম্যান রফিকের শতাধিক সমর্থক দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে আলমগীরের সমর্থক টিপু শেখের ৩টি, ইরাদত মােল্যার ২টি, আকরাম মােল্যার ১টি, শাহাদত মােল্যার ২টি, ইশারত মােল্যার ৩টি, মজনু শিকদারের ১টি, কিরামত আলীর ১টি ও সালাউদ্দীনের ১টি বসতঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর-লুটপাট করে। পর আলমগীরের ইট ভাটাও ব্যাপক ভাঙচুর করে তারা।

যদুনদী ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারন সম্পাদক মাে. আলমগীর মিয়া বলেন- ঘটনার দিন সন্ধ্যায় বাজারে ভ্যান রাখা নিয়ে আমার সমর্থক সাজ্জাদের সাথে রফিকের সমর্থক আমিনুলের মারামারি হয়। এতে দুই জনেই আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর রাত ৮টার দিকে রফিকের সমর্থকেরা আমিনুলের ভুয়া মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে আমার নিরীহ সমর্থকদের বাড়িতে গিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। তারা ঘরের ভিতর ঢুকে নারীদের সাথেও খারাপ আচরণ করে। আমার ইট ভাটায়ও হামলা-ভাঙচুর চালিয়ে ব্যাপক ক্ষতি করে।

যদুনদী ইউপি চেয়ারম্যান রফিক মােল্যা বলেন- এটি একটি দুর্ঘটনা। আমিনুল নামে আমার এক লােক হামলায় মারা যাওয়ার খবরে ভাঙচুরের ঘটনাটি ঘটেছ। বিষয়টি খুবই দু:খজনক। এ ঘটনার যারা জড়িত তাদর বিচার আমিও চাই।

সহকারী পুলিশ সুপার (নগরকাদা-সালথা সার্কেল) মাে. সুমিনুর রহমান বলেন- খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তব কি কারণে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনটি ঘটেছ, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ওই এলাকায় ফের সংঘর্ষের আশঙ্কা থাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মােতায়ন করা হয়েছ। পরিবেশ স্বাভাবিক হওয়ার আগ পর্যন্ত পুলিশ মােতায়ন থাকবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

error: Content is protected !!