1. news.ajkerkontho@gmail.com : Ajker Kontho : Ajker Kontho
  2. multicare.net@gmail.com : আজকের কন্ঠ :
মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ১২:৩০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
স্কুল ছাত্রীর লাশ তালাবদ্ধ বাথরুম ভেঙে উদ্ধার আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘরে চাঁদাবাজি, আটক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের স্বামী সালথায় যথাযথ মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ফরিদপুর আঞ্চলিক কেন্দ্রের শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন জাতির পিতাকে হত্যার পর তার নাম মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছিল- লাবু চৌধুরী বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন খাদ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র মজুমদারের শোক বাণী মেয়ের প্রেম লীলায় মা না ফেরার দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় দম্পতির প্রাণ গেল জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সালথার দলীয় নেতাদের সাথে মতবিনিময় করলেন লাবু চৌধুরী

সালথায় সরকারি সকল সুযোগ-সুবিধা বঞ্চিত ষাটোর্ধ্ব নিঃসন্তান বিধবা রোকেয়া

Rabiul Hasan Rajib
  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারী, ২০২২
ছবিঃ বিধবা এতিম রুকি

চৌধুরী মাহমুদ আশরাফ টুটু, (সালথা): ফরিদপুর সালথায় সরকারি সকল সুযোগ- সুবিধা থেকে বঞ্চিত ষাটোর্ধ্ব নিঃসন্তান বিধবা রুকি (৬৭)। থাকেন জীণশীর্ণ ঘরে। গনমাধ্যম কে এমনটাই বললেন বিধবা নিজেই।

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারী) এমনই দৃশ্য চোখে পড়ছে সালথা উপজেলার গট্টি ইউনিয়নের মেহেরদিয়া গ্রামে। ষাটোর্ধ্ব নিঃসন্তান বিধবা উপজেলার মেহেরদিয়া গ্রামের মৃত সোহরাফ মাতুব্বরের স্ত্রী রোকেয়া বেগম (রুকি) পিতা মৃত আকমল মুন্সী। পিতার ভিটায় জীবন কাটানো রুকি গনমাধ্যমকে আল্লাহর দুনিয়ায় সবার জন্য সরকারি সাহায্য, সুযোগ সুবিধা থাকলেও আমার ভাগ্যে কিছু জুটেনি। বাবা, মারা যাওয়ার পর আর কখনো মেরামত করা হয়নি তার একমাত্র পাটকাঠি দ্বারা বেষ্টিত শত ছিদ্রের টিনের ঘরটি। একটু বৃষ্টি হলেই টিনের ছিদ্র দিয়ে বৃষ্টির পানি ঘরের মেঝেতে পড়ে অনায়াসে, কর্দমাক্ত হয়ে উঠে ঘুমানোর জায়গাটুও। ঘরটির ভেঙ্গে পড়েছে মাটির তৈরী ডোয়ার চারপাশও। বয়সের ভারে নুইয়ে পড়েছে তার শরীর। বাসা বেধেঁছে নানা রকম অসুখে। ষাটোর্ধ্ব এই মহিলা কানে কম শোনে দেখতেও পাননা ঠিকমতো। আয় রোজগারের কোনো উপায় না থাকায় চলেন অন্যের দয়ায়। অর্ধাহারে অনাহারে থাকেন কখনো কখনো। অসুস্থ্য হয়ে ঘরে পড়ে থাকলেও খোঁজ নেওয়ার মতো কেউ নাই। জীবনে বহু কস্ট পাওয়া ষাটোর্ধ্ব নিঃসন্তান বিধবার কে নিবে তার দায়িত্ব? এমন প্রশ্ন সচেতন মহলের।

বিধবা রুকির বিষয়ে এলাকাবাসীর সাথে কথা হলে তারা গনমাধ্যমকে জানায় নিঃসন্তান বিধবা মহিলার স্বামী অনেক আগেই মারা গিয়েছে। স্বামী মারা যাওয়ার পরই তিনি বাবার ভিটায় ফিরে আসেন। এখন কামাই শোধেরও কেউ নাই। বেশীর সময়ই না খেয়ে কস্টে দিন কাটে তার। তারপরও, কপালে জুটেনি সরকারি কোনো সুযোগ-সুবিধা। গনমাধ্যম কর্মীরা তার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাকে একটি সরকারি ঘর এবং একটা বিধবা কার্ড করে দিলেই আমি খুশী।

গনমাধ্যম কর্মীদের সাথে কথা হয় গট্টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান লাভলুর সাথে, তাকে বিষয়টি জানাতে গেলে তিনি ব্যস্ত আছেন পরে কথা বলবেন বলে পাশকাটিয়ে জান। গনমাধ্যমের সাথে হয়, সালথা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ তাছলিমা আক্তারের সাথে এই বিষয় তিনিও জানান,সরকারি কোনো সুযোগ-সুবিধা আসলে বিধবার বিষয়টি অত্যান্ত আন্তরিকতার সাথে দেখা হবে। আপাতত উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

error: Content is protected !!