1. news.ajkerkontho@gmail.com : Ajker Kontho : Ajker Kontho
  2. multicare.net@gmail.com : আজকের কন্ঠ :
সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১০:১৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পথশিশুদের মাঝে খাবার বিতরন জেলা পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত দুই হাজার কোটি টাকা মানিলন্ডারিং মামলার আসামী সাইফুলকে কারাগারে প্রেরণ ফরিদপুরে ব্যতিক্রমী পূজা দেখতে দর্শনার্থীদের ভিড়, এক মন্দিরে তিনশত একটি প্রতিমা বসন্তপুর যুব সংঘের উদ্যোগে ফাইনাল ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের বাজার অভিযান ঐতিহ্যবাহী ঈঁশান বাবু বাড়ীর ১৪৫ তম দুর্গোৎসব ফরিদপুরে আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস পালন বিষাক্ত সাপে কামড়ের ৩দিন পর কৃষকের মৃত্যু খানখানাপুরে নির্মাণ শ্রমিকদের সাথে স্বপ্ননীড় কনসাল্টের সাথে মত বিনিময়ে সভা অনুষ্ঠিত

সালথায় বৃদ্ধ নিহত হওয়াকে কেন্দ্র করে হামলা ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ

Rabiul Hasan Rajib
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২১
সত্য প্রকাশে নির্ভীক

চৌধুরী মাহমুদ আশরাফ টুটু, সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের সালথায় মোহাম্মদ মাতুব্বর (৬০) নামক এক বৃদ্ধ নিহত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে মোসাঃ চায়না বেগম (৩৫) নামক এক মহিলা বাদী হয়ে সালথা থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছে বলে জানা যায়।

মোসাঃ চায়না বেগম এজাহারে স্থানীয় মৃত মুনসুর মাতুব্বরের ছেলে নুরু মাতুব্বর (৪৭), মৃত লাল মাসুদ মোল্যার ছেলে সাদিমান মোল্যা (৬০), মৃত গফুর মাতুব্বরের ছেলে মজিবর মাতুব্বর (৪৫) সহ মোট ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে বলেন এদের সাথে তাদের গ্রাম্য দলপক্ষ নিয়া দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ ও শত্রুতা চলে আসছে। উক্ত শত্রুতার জের ধরে আসামীগন তাকে ও তার পরিবারের লোকজনকে বিভিন্ন সময় মারপিট সহ বিভিন্ন প্রকার হুমকি প্রদর্শন করতে থাকে।

এক পর্যায়ে ২৯ ডিসেম্বর, ২০২১ তারিখ দুপুর অনুমান ২ টার সময় আসামীগন তার বাড়ীর উপর এসে উপরোক্ত ব্যক্তিদের দলে মিশার জন্য তার নিকট নগদ ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। সে আসামীদেরকে কোন টাকা পয়সা দিবে না বলে জানালে তাহা বাড়ি ঘর ভাংচুর করিবে বলিয়া হুমকি প্রদর্শন করে চলে যায়।

এরই জের ধরে উপরোক্ত ব্যক্তিরা ৩০ ডিসেম্বর, ২০২১ তারিখ রাত অনুমান ২ ঘটিকার সময় দেশীয় তৈরী রামদা, ছ্যানদা, লোহার রড, হাতুরী ও বাঁশের লাঠি ইত্যাদি নিয়া বেআইনী জনতাবদ্ধে অনাধিকার বাড়ীর উঠানে প্রবেশ করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এ সময় নুরু মাতুব্বরের হুকুমে অন্যান্য আসামীগন এলোপাথারী ভাবে মারপিট করে জখম করে এবং সকল বিবাদীগন তার ঘর দরজা, জানালা কুপাইয়া, বাইরাইয়া ভাংচুর করে।

এক পর্যায়ে ঘরের মধ্যে প্রবেশ করে ৫০ হাজার টাকা মূল্যের ১টি গরু, ২৫ হাজার টাকা মূল্যের ১টি ফ্রিজ, ৫০ হাজার টাকার পাট, টাকা পয়সা ও স্বর্নালংকার, মোবাইল এবং গ্যাসের চুলা নিয়ে যায়। এসময় বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাংচুর করে অনুমান ১ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে। তার ডাক চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসিলে আসামীগন তাকে প্রান নাশের হুমকি প্রদর্শন করে চলিয়া যায় বলে উল্লেখ করেন।

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ও শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে সরেজমিনে গিয়ে বাড়ি বাড়ি ঘুরে ভুক্তভোগী কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা যায় মোহাম্মদ মাতুব্বর (৬০) নামক এক বৃদ্ধ নিহত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় মৃত মুনসুর মাতুব্বরের ছেলে নুরু মাতুব্বর (৪৭), মৃত লাল মাসুদ মোল্যার ছেলে সাদিমান মোল্যা (৬০), মৃত গফুর মাতুব্বরের ছেলে মজিবর মাতুব্বর (৪৫) সহ তাদের সমর্থকরা সুবিধা নেওয়ার পায়তারা করছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু বাড়ীতে ভাংচুর ও লুটপাটও করেছে।

স্থানীয় এক মহিলার সাথে কথা বললে তিনি জানায়, পরশুদিন সকাল ৭ টার দিকে উপরোক্ত ব্যক্তিরা তাদের দলবল নিয়ে জোরপূর্বক তাদের ঘরে প্রবেশ করে ঘরের মধ্যে ভাংচুর চালায়। তাদের নিষেধ করলে তারা চাপাতি দেখিয়ে ভয় প্রদর্শন করে। ভাংচুর শেষে ঘরের মধ্যে থাকা স্বর্নালংকার, টাকা পয়সাসহ ঘরের দামী দামী জিনিসপত্র নিয়ে যায়। উক্ত মহিলা জানায়, তাদের প্রায় ৭ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন করেছে।

অন্য এক মহিলা জানায় উপরোক্ত ব্যক্তিরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তাদের হাঁসের খামারে থাকা প্রায়ই ২’শ টি হাঁস নিয়ে যায়।

ভুক্তভোগী আরো একজন মহিলা জানায়, তার স্বামী দীর্ঘদিন যাবৎ প্রবাসে থেকে দেশে এসে মোড়ে একটি দোকান দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিল। যেখানে টিভি, ফ্রিজ সহ অনেক মালামালে ভরা ছিল।

স্থানীয় দলাদলিকে কেন্দ্র করে উপরোক্ত ব্যক্তিরা দোকানে থাকা টিভি, ফ্রিজসহ দামী দামী মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে। এছাড়াও তাদের বাড়ীর দরজা-জানালা ও ভাংচুর করেছে বলে জানান।

এ বিষয়ে নুরু মাতুব্বরের সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি বলেন, আমি লুটপাট করিনি। আমি গ্রাম পুলিশ নিয়ে গ্রাম পাহারা দিয়ে রেখেছি। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে, সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আসিকুজ্জামানের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, শনিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ভাওয়াল ইউনিয়নের নারানদিয়া গ্রামে জমিজমা নিয়ে দুইজনের মধ্যে কথা কাটাকাটির জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় মোহাম্মাদ মাতুব্বর (৬০) নামে গুরুত্বর আহত এক ব্যক্তি রবিবার ভোররাতে হাসপাতালে মারা যান। নিহত মোহাম্মদ মাতুব্বর ওই গ্রামের মৃত জহুর মাতুব্বরের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শনিবার সন্ধ্যায় নারানদিয়া গ্রামের নুরু মাতুব্বরের সমর্থক জলিল শেখের ছেলে আবেদ শেখের সাথে প্রতিপক্ষ ইউপি সদস্য ওহিদ মাতুব্বরের সমর্থক ওয়াজেদ মাতুব্বরের ছেলে আবেদ মাতুব্বরের জমি বন্ধক নিয়ে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এরই সূত্রধরে ওহিদ মাতুব্বরের সমর্থকদের সাথে নুরু মাতুব্বরের লোকজনের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় নুরু মাতুব্বরের চাচা নিহত মোহাম্মাদ মাতুব্বর দৌড় দিলে রাস্তায় পড়ে যায়। তখন প্রতিপক্ষের লোকজন মোহাম্মদ মাতুব্বরের উপর হামলা চালায়। এ হামলায় গুরুত্বর আহত অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রবিবার ভোররাতে তিনি মারা যান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

error: Content is protected !!